কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করবেন?

পন্য বা সেবা সমূহকে বিজ্ঞাপনসহ বাজার গবেষনার মাধ্যমে বিক্রয় করার পক্রিয়াকেই মার্কেটিং বলে। আর ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে ডিজিটাল মিডিয়া ও ডিজিটাল প্রযুক্তি কে ব্যবহার করে অনলাইন/ইন্টারনেট এর মাধ্যমে পণ্য বা সেবার বিক্রয় কাজ পরিচালনা করা। আর আমরা মার্কেটিং করার জন্য যতো ধরনের বা পদ্ধতি ব্যবহার করি এগুলোই হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং। 

বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির যুগ। তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে আমারা সবাই এগিয়ে যাচ্ছি প্রযুক্তির সাথে। সময়ের পরিবর্তনে সবকিছুই প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে উঠছে। আর এই তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে আমরা যে কোন কাজ খুব সহজেই করতে পারছি। আর সেই সাথে আমরা ও সময়ের সাথে নিজেদের মিলিয়ে নিতে পারছি।

যেমন আগে আমরা কোন পণ্য ক্রয় করতে হলে বাজারে/মার্কেট এ যেতে হতো। এখন আমরা ঘরে বসেই নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী পণ্য ক্রয় বিক্রয় করতে পারি খুব সহজেই। আর এই পদ্ধতি ব্যবহার করে মার্কেটিং করাই হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং করার জন্য অনেকগুলো পদ্ধতি রয়েছে। কিন্তু এমন কিছু পদ্ধতি রয়েছে যেগুলো আমাদের ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে লাগবেই। তো আমরা আজকে জানবো ডিজিটাল মার্কেটিং এ যে বিষয় গুলো সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় সেগুলো সম্পর্কে।

  • SEO (Search Engine Optimization)
  • Online Advertising
  • SMM (Social Media Marketing)
  • Email Marketing
  • Affiliate Marketing
  • Content Marketing
  1. SEO

Search Engine Optimization এর সংক্ষিপ্ত রূপ হচ্ছে SEO. বাংলায় সংজ্ঞা দিলে বলা যায়, SEO হল এমন কিছু নিয়মনীতি/টেকনিক যার মাধ্যমে কোন একটা ওয়েবসাইট বিভিন্ন ধরনের সার্চ ইঞ্জিন (Google, Yahoo, Bing etc.) থেকে বেশি পরিমাণে ভিজিটর/ট্র্যাফিক পেতে পারে। আর এই বেশি পরিমান ট্র্যাফিক বা ভিজিটর আনার একমাত্র কারন হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন গুলোর প্রথম পেজ এ আমাদের ওয়েব সাইট কে আনা। আর যখন আমাদের ওয়েব সাইট সার্চ ইঞ্জিন গুলোর প্রথম পেজ এ চলে আসে তখন স্বয়ংক্রিয় ভাবেই আমাদের ওয়েবসাইট এর ভিজিটর বাড়তে থাকে।

SEO কে সাধারণত ২ ভাগে ভাগ করা যায়।

  • On Page SEO
  • Off Page SEO

আপনি আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে যা বলেছেন তা হচ্ছে On Page SEO , এটিকে Technical SEO ও বলে। আর অন্যরা আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে যা বলছে তা হলো Off Page SEO ,এটিকে Link Building ও বলে।

ধরুন আপনি একটা প্রোডাক্ট সম্পর্কে অথবা প্রোডাক্ট এর নাম লিখে যে কোন সার্চ ইঞ্জিন এ সার্চ করলেন। তখন প্রথম পেজ এ যে ওয়েবসাইট গুলো আসবে বুজতে হবে সেগুলোতেই আপনার সার্চ করা প্রোডাক্ট টি রয়েছে। এবং আমরা নিজেদের কথাই চিন্তা করতে পারি ধরুন আমরা কোন একটা নির্দিষ্ট বিষয় নিয়ে একটা ওয়েবসাইট তৈরি করলাম। এখন আমাদের ওয়েবসাইট এ আছে, এমন কোন প্রোডাক্ট বা ইনফর্মেশন লিখে কেউ সার্চ করলে আমাদের ওয়েবসাইট টি সার্চ ইঞ্জিন এর ১০ নং পেজ আসে, তখন কেউ তো আর ধরেই প্রোডাক্ট টি খোঁজার জন্য ১০ নং পেজ যাবে না। অবশ্যই ১ নং পেজটিই আগে দেখবে। আর এজন্য আমাদের ওয়েবসাইট এর ট্র্যাফিক/ভিজিটর বাড়াতে হবে আর Search Engine Optimization এর সঠিক পদ্ধতি গুলো অনুসরন করতে হবে।

  1. Online Advertising

আমরা অনলাইন এর মাধ্যমে যে বিজ্ঞাপন প্রচারনা করি তাই হচ্ছে মূলত Online Advertising. Online Advertising আবার Traditional Advertising এর মতো নয়।

Online advertising কয়েক ধরনের হয়ে থাকে, যেমনঃ

  • CPC (Cost Per Click)
  • CPA (Cost Per Action)
  • CPV (Cost Per View)
  • Display Advertising etc.

CPC হচ্ছে বিজ্ঞাপনের একটি ফর্ম যা ভোক্তাদের কাছে প্রচারমূলক বিপণনের বার্তা হিসেবে যাবে। আর একজন advertiser তার অ্যাড দেয়ার বিনিময়ে প্রতি ক্লিক এর জন্য কতো টাকা বা ডলার দিয়ে থাকেন।

CPA অর্থ হচ্ছে cost per action, অর্থাৎ আপনি যদি কোন একটি অ্যাকশান কমপ্লিট করতে পারেন তার বিনিময়ে অনলাইন মার্কেট আপনাকে একটা revenue দেবে। আর revenue টা হচ্ছে মূলত $, আর revenue এর বাংলা অর্থ হচ্ছে রাজস্ব বা আয়। এটি একটি নতুন Online Advertising প্রক্রিয়া।

CPV অর্থাৎ cost per view. CPC, CPA এগুলোর মতো এটি ও একটি Online Advertising সিস্টেম। একটি বিজ্ঞাপন প্রতিবার কি পরিমাণ বা কতো সময় পর্যন্ত ভিউ হয়েছে তার উপর ভিত্তি করেই revenue দেয়।

Display advertising টা হচ্ছে মুলত পথে ঘাটে আমরা যে প্রচারমূলুক বিলবোর্ড বা ব্যানার গুলো দেখতে তার ডিজিটাল রূপ। আর এইগুলো গুগল অ্যাডওয়ার্ডস এর মাধ্যমেই করা হয়।

  1. Social Media Marketing (SMM)

আমরা অনেক ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করি , যেমনঃ Facebook, Twitter, Instagram, Google Plus আরো অনেক রয়েছে। এগুলোকে আমরা সোশ্যাল নেটওয়ার্ক বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বলে থাকি। আমরা একজন অন্যজনের সাথে বা একজন অনেকগুলো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ রক্ষার্থে এই মাধ্যম গুলো ব্যবহার করে থাকি। এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোকে কাজে লাগিয়ে মার্কেটিং করা বা যে পদ্ধতি অনুসরন করে আমরা প্রচারনা করি তাকেই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বলে।

Social Media Marketing আবার ২ প্রকার।

যেমনঃ

  • Paid Marketing (টাকা দিয়ে পেজ অথবা গ্রুপ কে প্রমোট করে)।
  • Free Marketing (পাবলিক গ্রুপ ও পাবলিক পেজ এ পোস্ট অথবা কমেন্ট এর মাধ্যমে)।

আর এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোর প্রত্যেক টি তেই আলাদা সিস্টেম বা পদ্ধতি রয়েছে কিভাবে মার্কেটিং করতে হবে। আর বর্তমানে কোন কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান তৈরি করা থেকে শুরু করে তার উন্নয়ন কার্জক্রম এ ও সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যাপক ভুমিকা লক্ষ্য করা যায়।

যেমনঃ

  • একে অপরের সাথে ভালো একটা সম্পর্কের সৃষ্টি হয়।
  • বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কে ফিডব্যাক পাওয়া যায়। এই তাৎক্ষনিক ফিডব্যাক পাওয়ার কারনে আমাদের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস এর ভুল ত্রুটি নির্ধারণ করতে পারি খুব সহজেই।
  • পরস্পর যে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে পারি। এবং কারো কোন বিষয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে আমরা সেই বিষয়ে সরাসরি উত্তর দিতে পারি।
  • কিভাবে একটা সার্ভিস বা প্রোডাক্ট কে ভালো ভাবে উন্নয়ন করা যায় এগুলো সম্পর্কে জানা যায়।
  • অনেক বিষয়ই রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আমাদের ধারনা নেই, কিন্তু ঐ বিষয় গুলো সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে, ঐ সব বিষয় গুলো সম্পর্কে আমরা জানতে পারি।
  1. Email Marketing

ইমেইল মার্কেটিং হচ্ছে এমন একটি নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া বা পদ্ধতি যেখানে কোম্পানি তার নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌছানোর জন্য ঐ নির্দিষ্ট বিষয়ের সাথে জড়িত বা যারা এই বিষয় গুলো পছন্দ করেন তাদের ইমেইল কালেক্ট করেন, এবং তাদেরকে বিভিন্ন সময়ে ঐ বিষয় সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ধরনের প্রমোশনাল/প্রচারমূলক ইমেইল পাঠান।

আর ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য যে ২ টি বিষয় খুব গুরত্বপুর্ন তা হচ্ছেঃ

  • Optin Form
  • Email Marketing Service

আর এই ২ টি পদ্ধতি লক্ষ্য না করলে ইমেইল মার্কেটিং করা সম্ভব না।

  1. Optin Form

Optin Form টা হচ্ছে যেখানে কোম্পানি নির্দিষ্ট কোন পন্যের উপর কমিশন থাকলে তা ইমেইলের মাধ্যমে জানিয়ে দেয় অথবা কোন পন্য বা সার্ভিস এর সাথে কোন কিছু ফ্রী থাকলে তা নেওয়ার জন্য অফার করে।

  1. Email Marketing Service

কোম্পানি যখন একাধিক ব্যক্তিকে ইমেইল পাঠায় তখন সে ইমেইল মার্কেটিং সার্ভিস বা এই রকম সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ইমেইল পাঠায় । বিশেষ করে এই সব কাজে ইমেইল পাঠানোর ক্ষেত্রে ইমেইল মার্কেটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ইমেইল মার্কেটিং এর জন্য জনপ্রিয় সফটওয়্যার গুলো হচ্ছেঃ

  • Aweber
  • Mail Chimp
  • Get Response

আর কোম্পানি ইমেইল কালেক্ট করার জন্য কিছু বিষয় বেছে নেয়।

যেমনঃ

  • eBook
  • Cheat sheet of tips or resource
  • Free webinar
  • Coupon ইত্যাদি।

আর এই বিষয় গুলো বিশেষ করে E-Commerce Technology বা E-Commerce ওয়েবসাইট গুলোতে দেখা যায়।

  1. Affiliate Marketing

Affiliate Marketing টা হচ্ছে মার্কেটিং এর এমন একটি পদ্ধতি বা সিস্টেম যেখানে আমাদের নিজেদের কোন প্রোডাক্ট নেই, আপনি সেখানে অন্য কোন ব্যক্তি বা তাদের ওয়েবসাইট থেকে প্রোডাক্ট নিয়ে নিজের ওয়েবসাইট বা পেজ এনে প্রমোট করবেন, এবং কেউ যদি আপনার প্রমোট করা লিংক বা ব্যানার থেকে ক্লিক করে ঐ প্রোডাক্ট টি ক্রয় করে তাহলে আপনি সেখান থেকে কিছু টাকা কমিশন হিসেবে পাবেন।

Affiliate marketing এর সাথে মূলত ৩ টা জিনিস জড়িত। আর জিনিস গুলো হচ্ছেঃ

  • Merchants Or Advertiser
  • Networks (Click Bank, Commission Junction, Amazon Affiliate)
  • Publisher

Merchants or Advertiser

Merchant/বনিকদের কাজ হলো তাদের প্রোডাক্ট নির্ধারণ করা, এবং কখন মার্কেট এ কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদা ভালো সে প্রোডাক্ট গুলো নির্বাচন করা।

  1. Networks

Merchant রাই সাধারণত এই নেটওয়ার্ক গুলোর সাথে সংযুক্ত থাকেন, তারা তাদের প্রোডাক্ট গুলো অনলাইন ভিত্তিক এই সব Affiliate Network সাইট এ শেয়ার করে। কয়েকটি জনপ্রিয় Affiliate Network সাইট।

যেমনঃ

  • Click Bank
  • Share A Sale
  • Amazon Affiliate
  • eBay
  • Market Health
  1. Publisher

যারা Affiliate Market থেকে এই প্রোডাক্ট গুলোর সন্ধান নেয়, তাদের নিজেদের ওয়েবসাইট বা পেজ এ এই প্রোডাক্ট গুলো কে প্রমোট করে বিক্রি করার জন্য তাদেরকেই Publisher /প্রকাশক বলে।

  1. Content Marketing

Content বলতে আমরা সাধারনত বিভিন্ন ধরনের ব্লগ পোস্ট, ভিডিও, ই-বুক ইত্যাদিকেই বুঝে থাকি । আমরা যখন অনলাইন এ কোন Content নিয়ে মার্কেটিং করি তখন তাকে Content মার্কেটিং বলে।

অনলাইন এ মার্কেটিং করা কতোগুলো Content:

  • Web Page
  • Blog Post
  • Podcast
  • Slide
  • PDF , E-Book , Book
  • Image
  • Video ইত্যাদি।

Content এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বিষয় টি হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং এর জন্য অবশ্যই Content তৈরি করতে হবে। এমনকি Search engine optimization, Social Media marketing সব জায়গাতেই Content প্রয়োজন। Content ছাড়া ডিজিটাল মার্কেটিং অসম্ভব।

মূল কথা হচ্ছে যদি আমরা Digital Marketing এর কথা চিন্তা করি তাহলে অবশ্যই আমাদের উপরের বিষয় গুলো মাথায় রাখতে হবে এবং সব গুলো ধাপ পার হওয়ার ক্ষেত্রে সঠিক পদ্ধতি অনুসরণ করেই পার হতে হবে।

Web Analysist 

Web Analysist এর মাধ্যমে ওয়েব ডাটা কালেক্ট করা, এনালাইসিস করা হয়ে থাকে যার ফলে কতটুকু বা কি  পরিমান ওয়েব সাইট ব্যবহার করা হয় তা জানা যায়। এছাড়াও এটি দিয়ে শুধু ওয়েব সাইট ট্রাফিক বা ভিজিটর পরিমাপ করা না এটি দিয়ে ব্যবসা বা মার্কেটও রির্সাচ করা যায়। ফলে একটা ওয়েব সাইটের কার্যকারিতাও বাড়ানো যায়।

Youtube Marketing 

Youtube Marketing হচ্ছে একটি প্রসেস যেটার মাধ্যমে একেক জন গ্রাহকদের কাছে বিভিন্ন সোশ্যাল চ্যানেলের ব্যপারে জানানো হয়ে থাকে। এছাড়াও এই মার্কেটিংয়ে আপনি বিভিন্ন ধরনের চ্যানেলের লিংকও যুক্ত করতে পারেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on pinterest
0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
Testimonials
Subscribe weekly news

ব্যবসায়ের প্রচার ও প্রসার বাড়াতে চান? দেশ সেরা মার্কেটিং সেবা নিতে যোগাযোগ করুন

0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x

We love writing great content and sharing industry insights. To get a copy of our research on latest trends , subscribe to our newsletter

Subscribe to our newsletter

Sign up to receive updates, promotions, and sneak peaks of upcoming products. Plus 20% off your next order.

Promotion nulla vitae elit libero a pharetra augue